রবিবার, ৫ মে, ২০১৯

প্রধানমন্ত্রীর প্রতি ছাত্রলীগ নেতা ছৈয়দ মোহাম্মদ নোমান এর খোলা চিঠি | SSTV বাংলা



রবিউল হাসান শিমুল :
বাংলাদেশ ছাত্রলীগ উখিয়া উপজেলা শাখা এর সাবেক সভাপতি /সাবেক সাধারণ সম্পাদক ছৈয়দ মোহাম্মদ নোমান আজ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে একটি খোলা চিঠি লিখেন।

সম্মানিত পাঠকদের জন্যে নিচে হুবহু চিঠি'টির অনুলিপি দেয়া হল:-

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী,
আমি নিরহ নিরপরাদ আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল একজন বঙ্গবন্ধুর আদর্শিক কর্মী। আপনার মাধ্যমে বাংলাদেশের সকল প্রশাসনকে অনুরোধ জানাচ্ছিযে,আমাকে মিথ্যা ভাবে জড়ানো মামলাটির মূল আসামী কে তার মুখোশ উম্মোচন করেদেওয়ার অনুরোধকরছি।
মাননীয় নেত্রী, উখিয়া টেকনাফকে আওয়ামীলীগের নেত্রীত্ব শুন্য করার জন্য একটি মহল উঠেপড়ে লেগেছে। টেকনাফের একেরাম হত্যাকান্ড দিয়ে এর আগেও র‍্যাব এবং পুলিশ প্রশাসনকে বিতর্কিত করার চেষ্টা করেছিল এই ইমরুল কায়েস চৌধুরীর একটি মিথ্যা নিউজের মাধ্যমে টেকনাফের কমিশনার আলোচিত একেরাম হত্যাকান্ড। মাননীয় নেত্রী আপনার মাধ্যমে প্রশাসনের কাছে একটাই  অনুরোধ, আর যাতে কোন নিরীহ লোক হয়রানির শিকার না হয়, কোন মা তার সন্তান হারানোর যন্ত্রনায় পড়তে না হয় , কোন সন্তান তার পিতা হারানোর বেদনায় সারা জীবন বয়ে না বেড়ায়, আপনারা এই মামলার বিষয়টি সঠিক ভাবে তদন্ত করে যদি আমাকে (১০০০) হাজার ভাগের এক ভাগ ও সত্যতা পান ঐসমস্ত আসামীদের সাথে কোনদিন কোনখানে বসেছি, কোন দোকানে এককাপ চা খেয়েছি, মোবাইলে তাদের সাথে এক মিনিট কথা বলেছি, বা নূন্যতম কোন সম্পর্কের তথ্য পান, এমনকি আসামীদের জব্দকৃত নয়টি মোবাইল কললিষ্টেও যদি আমার সাথে একটি মিনিট কথা হয়েছে এমন কোন তথ্য পান আদালতের বিচার লাগবেনা আমাকে দিন দুপুরে ফায়ার স্কোয়াডে গুলি করে হত্যা করবেন। এতে সরকারের কাছে আমার পরিবারের কোন প্রকার অভিযোগ থাকবেনা। এবং আপনাদের নিকট একটি বিষয় পরিষ্কার করি সেটি হচ্ছে আসামীদের কাছথেকে নয়টি মোবাইল জব্দ করেছে প্রশাসন এবং প্রত্যেকটি মোবাইলের কললিষ্টও বের করেছে প্রশাসন চাইলেই সেই লিষ্ট থেকে আসল অপরাধী বেরিয়ে আসবে। এখানে ষড়যন্ত্রকারীরা প্রত্যক্ষ ভাবে জড়িত। থেমে নেই ষড়যন্ত্র সে আল্লাহ্‌ কে ও ভুলে গেছে। আল্লাহ আপনিতো মহান, আপনিতো বিচারকদের বিচারক এই বিচার আপনাকে দিলাম।

ছৈয়দ মোহাম্মদ নোমান
সাবেক সভাপতি /সাবেক সাধারণ সম্পাদক বাংলাদেশ ছাত্রলীগ উখিয়া উপজেলা শাখা।

শেয়ার করুন

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.

0 coment rios:

ধন্যবাদ আপনার সচেতন মন্তব্যের জন্য।