সোমবার, ১৫ জুলাই, ২০১৯

যেসব কারনে প্রাথমিক শিক্ষকদের ১১তম গ্রেড জরুরী-আমাদের আকুল দাবি

যেসব কারনে প্রাথমিক শিক্ষকদের ১১তম গ্রেড জরুরী-আমাদের আকুল দাবি- 

(১)এখনো যারা সচিব,ডাক্তার,ইঞ্জিনিয়ার বা দেশকে লিড দিচ্ছেন বা দিবেন তাদের ৯৫% সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে উঠে আসা শিক্ষার্থী। সরকারি প্রাথমিকের সাথে তাদের আত্মার সর্ম্পক।এসব বিদ্যালয়ের উন্নয়নে তাই তাদের অবশ্যই কিছু করার আছে।অসহায় শিক্ষকদের সবাই ভুলে যাচ্ছে। 
(২)সবসময় দেখা গেছে যেসব শিশু সরকারি প্রাথমিকে পড়েছে।তারা ধীরে ধীরে তাদের মেধার বিকাশ ঘটাতে পেরেছে। 
(৩)কিন্ডারগার্টেন বা বেসরকারি স্কুলে পড়ুয়া শিশুরা সাময়িকভালো রেজাল্ট করলেও উপর পর্যায়ে গিয়ে পড়ার আগ্রহ হারিয়ে ফেলে।কারন অল্প বয়সেই মাত্রাতিরিক্ত চাপ তাদের বয়স বাড়ার সাথে সাথে মনের উপর বিরুপ প্রতিক্রিয়া তৈরি করে। 
(৪)প্রাথমিক স্কুলে এখনো কিছু ধনী অবিভাবক আস্থা রাখছে।পাশাপাশি যেসব গরীব মানুষের ছেলেমেয়ে এখানে পড়ছে।বিশ্বাস করুন তারাই একদিন দেশকে লিড দেবে। 
(৫)কিন্ডারগার্টেন এ পড়ুয়া শিশুরা একসময় প্রতিযোগিতায় হারিয়ে যায়।ইংলিশ মিডিয়ামের শিশুরা বিদেশে চলে যাবে।সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশুরা দেশপ্রেমিক হয়।দেশকে সব দিক থেকেই লিড দিবে। 
(৬)প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের যদি উন্নত মানের গ্রেড,পর্যাপ্ত শিক্ষক,প্রতিটি বিদ্যালয়ে সংগীত, চারুকারু,শারীরিক শিক্ষা শিক্ষক নিয়োগ এবং বিভাগীয় পদোন্নতির ব্যবস্থা করা হয়।আরো মেধাবীর সমাগম ঘটবে।ফলে ১০০% শিশুর সুপ্ত প্রতিভা বিকাশ সম্ভব হবে। 

(৭)প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বেশীরভাগ গরীব মানুষের ছেলেমেয়ে পড়ে।যারা নিজের অধিকার সর্ম্পকে সচেতন নয়।তাই তারা দাবি করতে পারে না সময়সূচি কমিয়ে এনে তাদের শিশুর বিশ্রামের ব্যবস্থা করা।শিক্ষদের বেতন বাড়ালে ভালো শিক্ষক আসবে এটাও বুঝতে পারে না।তাই প্রাথমিকে শিক্ষকের অভাবে অনেক বিদ্যালয়ের পড়াশোনা ব্যাপক ক্ষতি গ্রস্ত হচ্ছে। 

(৮)প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বেতন বৃদ্ধির সাথে কর্মকর্তাদের বেতনের সর্ম্পক যুক্তিমূলক নয়।উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের চেয়ে একাডেমিক সুপারভাইজারের বেতন কম।তাও তো চেইন অফ কমাণ্ডের সমস্যা হয় না।তাও শিক্ষকেরা চায় AUEOরা প্রথম শ্রেণীতে আপগ্রেড হোক। 
(৯)প্রেষণা দিয়ে কাজ আদায় সহজ।শাস্তি দিয়ে নয়।

শেয়ার করুন

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.

0 coment rios:

ধন্যবাদ আপনার সচেতন মন্তব্যের জন্য।