বুধবার, ১৭ জুলাই, ২০১৯

হাবিপ্রবিতে ভেটেরিনারি শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ

বাংলাদেশ ভেটেরিনারি স্টুডেন্ট'স এসোসিয়েশন,হাবিপ্রবির আয়োজনে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে ডিপ্লোমাধারী ও প্রশিক্ষণার্থীদের বাংলাদেশ ভেটেরিনারি কাউন্সিল (বিভিসি) কতৃক অযৌক্তিক রেজিস্ট্রেশন বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করা হয়েছে। বাংলাদেশ ভেটেরিনারি কাউন্সিল (বিভিসি),কাউন্সিল শব্দের অর্থ পরামর্শসভা বা আলোচনাসভা। বিভিসি নাম দ্বারা বোঝা যায় এই প্রতিষ্ঠানটি বাংলাদেশের ভেটেরিনারিয়ানদের নিয়ে আলোচনাসভা করে।

দেশে ভেটেরিনারি সেবার মান উন্নয়ন এবং ভেটদের বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা নিয়ে আলোচনা করার কথা ছিল এই প্রতিষ্ঠানটির।কিনতু বাস্তবচিত্র তার সম্পূর্ন বিপরীত।বিভিসি ভেটদের বুকে ছুরি মেরে যারা ভেটেরিনারি কোর্সে ডিপ্লোমা ও কয়েক মাসের প্রশিক্ষন গ্রহন করেছে তাদেরকে ভেটেরিনারি সেবা প্রদানের জন্য রেজিস্ট্রেশন দেওয়ার আইন পাশ করিয়েছে সংসদে।অথচ পূর্বে বিভিসি থেকে শুধু ভেটেরিনারিয়ানদেরকেই রেজিস্ট্রেশন দেওয়া হত। 

এটি তারা গোপনে পাশ করিয়েছে।বিভিসি কমিটিতে ১৪ জন সদস্য রয়েছেন। কোন আইন পাশ তো দুরের কথা কোন সিদ্ধান্ত গ্রহনের ক্ষেত্রেও কমিটির সকলের মতামত নিয়ে কাজ করতে হবে।কিন্তু এই কমিটির মাত্র তিনজন ব্যাক্তি ১.বিভিসি'র সভাপতি ডা. মঞ্জুর কাদের, ২. বিভিসি'র রেজিস্ট্রার ডা. ইমরান হোসেন খান, ৩. ডেপুটি রেজিস্ট্রার ডা. গোপাল চন্দ্র বিশ্বাস বাকি অন্যান্য সদস্যদের না জানিয়েই একটি সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আর সেটি সংসদে পাশও করে ফেলেছেন।তারা নিজেরাও ভেট, তারা নিজেদের ক্ষুদ্র স্বার্থে সারা বাংলার ভেট সমাজের বৃহত স্বার্থকে গলা টিপে হত্যা করেছেন।

বিভিসি কর্তৃক এই অযৌক্তিক রেজিস্ট্রেশন বাতিলের দাবিতে বাংলাদেশ ভেটেরিনারি স্টুডেন্ট'স এসোসিয়েশন,হাবিপ্রবি বিক্ষোভ মিছিল করেছে এবং এর তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে।বিক্ষোভ মিছিল এবং সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন রংপুর ডিভিশন থেকে নির্বাচিত বর্তমান বিভিসি কমিটির মেম্বার প্রফেসর ড. মোঃ মোস্তাফিজার রহমান, চেয়ারম্যান, মাইক্রোবায়োলজি ডিপার্টমেন্ট, হাবিপ্রবি,দিনাজপুর স্যার বলেন এই বিষয়ে আমি কিছু জানিনা, আমাকে জানানো হয়নি, আর কোন মিটিং করেও এই আইনের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি।

স্যার এরকম ধ্বংসাত্ক আইনের তীব্র সমালোচনা করেছেন এবং অনতিবিলম্বে এই আইন বাতিল এবং উক্ত তিনজন ব্যাক্তির শাস্তি দাবি করেছেন এবং পরিশেষে এই আন্দোলনকে সমর্থন করে সাথে থাকার আশ্বাস দিয়েছেন। আরো উপস্থিত ছিলেন ডাঃ মোঃ তৌহিদার রহমান স্যার, ডাঃ মোছাঃ মিসরাত মাসুমা পারভেজ ম্যাম এবং হাবিপ্রবির ভেটেরিনারি এন্ড এনিমেল সাইন্স অনুষদের সকল শিক্ষার্থীবৃন্দ। সকলেই অনতি বিলম্বে এই আইন বাতিলের দাবি জানান এবং উক্ত তিনজন ব্যাক্তির শাস্তি হিসেবে উনাদের ডিভিএম ডিগ্রী এবং ভেট রেজিস্ট্রেশন বাতিলের দাবি জানান।

শেয়ার করুন

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.

0 coment rios:

ধন্যবাদ আপনার সচেতন মন্তব্যের জন্য।