বুধবার, ৭ আগস্ট, ২০১৯

বাবুগঞ্জে ঘড়ে ঢুকে কলেজ ছাত্রীকে কুপিয়ে হত্যা চেষ্টা>> SSTV Bangla


শফিকুল ইসলাম, বাবুগঞ্জ প্রতিনিধি ॥ বাবুগঞ্জ উপজেলার উত্তর দেহেরগতি এলাকার মৃত সত্তার হাওলাদারের মেয়ে সাজেদা খাতুন মুক্তা(২০) নামের এক কলেজ ছাত্রীকে গভির রাতে গৃহে প্রবেশ করে এলোপাথারি কুপিয়ে হত্যা চেষ্টা করেছে র্দুবৃত্তরা।




মুমুর্ষ অবস্থায় মুক্তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেছেন বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালের চিকিৎসক।

মঙ্গলবার দিবাগত গভীর রাতে ওই ঘটনা ঘটে। আহত মুক্তা বাবুগঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অর্নাস দ্বিতীয় বছরের ছাত্র। সংবাদ পেয়ে বাবুগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।




মুক্তার পারিবারিক বরাত দিয়ে তার বড় ভাই ছগির জানায়, তার মা ছায়েরা বেগম রাতে পাশের গৃহে টেলিভিশন দেখছিলেন । মুক্তা এশার নামাজ পড়ে কোরআন তেলাওয়াত করে মায়ের ভরষায় কক্ষের দরজা খোলা রেখেই ঘুমিয়ে পড়ে। টেলিভিশন দেখা অবস্থায় তার মাও ঘুমিয়ে পড়ে। এদিকে রাত ১টার দিকে মুক্তার কক্ষে কে বা কারা প্রবেশ করে প্রথমে তার মুখ চেপে ধরে। সে বাঁচার তাগিদে চেপে ধরা হাতে স্বজোরে কামড় বসিয়ে দেয়। তখন র্দুবৃত্তরা তাকে ধারাল অস্ত্র দিয়ে এলোপাথারি কোপিয়ে মৃত্যু নিশ্চিৎ ভেবে চলে যায়। এসময় মুক্তার আকুতি শুনে তার মামী ছুটে এসে কক্ষে গিয়ে তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় পরে থাকতে দেখে চিৎকার করলে সকলে যেগে উঠে। গুরুতর অবস্থার মুক্তাকে উদ্ধার করে প্রথমে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে মুক্তার অবস্থা গুরুত্বর দেখে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা প্রেরণ করেন। কি কারণে এমনটি হয়েছে তার সঠিক জবাব আহত মুক্তাও জানে না।




এ ঘটনায় বুধবার দুপুরে বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামী করে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন আহত শিক্ষার্থীর মা ছাহেরা বেগম। সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আনোয়ার সাঈদ।

এ ব্যপারে বাবুগঞ্জ থানার ওসি(তদন্ত) আব্দুর রহমান মুকুল বলেন, অভিযোগ পাওয়া গেছে। অপরাধীদের গ্রেফতারের চেষ্টা করছে পুলিশ।

শেয়ার করুন

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.

0 coment rios:

ধন্যবাদ আপনার সচেতন মন্তব্যের জন্য।