সোমবার, ২৬ আগস্ট, ২০১৯

জৈন্তাপুরে অসামাজিক কাজের অভিযোগে যুবলীগ নেত্রীসহ আটক ১৯>> SSTV Bangla


সিলেটের জৈন্তাপুরে অসামাজিক কাজে জড়িত থাকার অভিযোগে সিলেট জেলা যুব মহিলা লীগের এক নেত্রীসহ ১৯ জনকে আটক করে পুলিশে দিয়েছেন এলাকাবাসী। 






রোববার (২৫ আগস্ট) রাত ১২ টায় এলাকাবাসী জৈন্তাপুর উপজেলার চিকনাগুল ইউনিয়নের উপহার কমিউনিটি সেন্টার সংলগ্ন একটি বাসা থেকে তাদের আটক করেন। আটককৃতদের মধ্যে ছিলেন ৩জন মহিলা ও ১৬ জন পুরুষ। সোমবার (২৬ আগস্ট) সকাল ১১টায় তাদের আদালতে প্রেরণ করে জৈন্তাপুর মডেল থানা পুলিশ।   

আটককৃতরা হলেন, শাহপরান থানার পীরের চক গ্রামের মৃত আব্দুল কাদিরের ছেলে মাহতাব আহমদ(২২), শাহপরান থানার পীরের বাজার হাতুড়া গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে আলী হোসেন(৩৪), জৈন্তাপুর থানার পাঠনীপাড়া গ্রামের বর্তমান খাদিমপাড়া ২নং রোডের বাসিন্ধা মো. জয়নালের ছেলে মো. আলকাছ(২৭), খাদিমপাড়া চামেলীবাগ গ্রামের আব্দুল গফ্ফারের ছেলে মো. শাকিল শাহ(৩৪), বাউল টিলা গ্রামের মৃত আলকাছ মিয়ার ছেলে মো. সাজু (২৫), খাদিমপাড়া ২নং রোড গ্রামের মীর হোসেনের ছেলে সানি আহমদ(২১), জালালনগর গ্রামের শাহজাহান মিয়ার ছেলে ইমন আহমদ(১৯), শাহপরান আলবারাকা বিআইডিসি গ্রামের সোহেল আহমদের ছেলে হৃদয় আহমদ (১৯), মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া থানার পুরশাহ গ্রামের মতিন মিয়ার ছেলে শোয়েব আহমদ(২১), শিবগঞ্জ সাদিপুর গ্রামের মৃত আব্দুল আউয়ালের ছেলে মোস্তাকিন(১৯),




৪নং রোড খাদিমপাড়া গ্রামের দ্বীন ইসলামের ছেলে রুহুল আমীন(২০), মেজরটিলা সৈয়দপুর গ্রামের শহীদ আহমদের ছেলে শাহিন আহমদ(২৪), ৬নং রোড খাদিমপাড়া গ্রামের আব্দুল গফুরের ছেলে জুনাইদ আহমদ(২২), শাহপরান বাহুবল গ্রামের জাবেদ আহমদের ছেলে ইমরান আহমদ (২২), শাহপরান রুস্তুমপুর গ্রামের মো. মিন্টু মিয়ার ছেলে মো. আরিফ হোসেন(২১), শাহপরান মোহাম্মদপুর আবাসিক এলাকার বাসিন্ধা জকিগঞ্জ থানার বিয়ারাইল গ্রামের মৃত ইলিয়াছ মিয়ার ছেলে রাজু আহমদ(২১), জৈন্তাপুর উপজেলার ৩নং চারিকাটা ইউনিয়নের বনপাড়া দক্ষিণ বর্তমান পশ্চিম ঠাকুরের মাটি গ্রামের আজিজুর রহমান চৌধুরীর স্ত্রী মিনারা বেগম চৌধুরী (৩১) ও একই গ্রামের আব্দুর রশিদের মেয়ে লিমা বেগম(১৮), জালালাবাদ থানার কুমারগাঁও নজিরগাঁও মাতৃ মঞ্জিলের মোহাম্মদ হোসেন স্ত্রী হেনা বেগম(৪৫)। 







জৈন্তাপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শ্যামল বনিক বলেন, অসামাজিক কাজে জড়িত থাকায় এলাকাবাসী তাদেরকে আটক করে পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে আমার নেতৃত্বে পুলিশ ফোর্স ঘটনাস্থলে পৌঁছালে এলাকাবাসী তাদেরকে আমাদের কাছে হস্তান্তর করেন। আমরা আজ আটককৃতদের আদালতে প্রেরণ করি। 


শেয়ার করুন

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.

0 coment rios:

ধন্যবাদ আপনার সচেতন মন্তব্যের জন্য।