শুক্রবার, ১১ অক্টোবর, ২০১৯

থানা মামলা না নেয়ায় কবর থেকে তোলা হলো লাশ...


নিউজ ডেস্কঃ-
টাঙ্গাইলের ঘটাইলে পুলিশ হত্যা মামলা না নেয়ায় আদালতে মামলা হয়। পরে আদালতের নির্দেশে দাফনের চার মাস ১১দিন পর এক ব্যক্তির লাশ উঠানো হলো। বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার দশআনি বকশিয়া গ্রামের ওসমান গনির লাশ কবর থেকে উঠায় কর্তৃপক্ষ। পরে লাশটি ফরেনসিক প্রতিবেদনের জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়।
এ বিষয়ে নিহত ওসমান গনির ছোট ভাই ও মামলার বাদী ছালামত খান অভিযোগ করে বলেন, চার মাস আগে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে আমার বড় ভাই ওসমান গনিকে হত্যা করে প্রতিবেশী নাজিম উদ্দীনসহ অন্যরা। এ বিষয়ে ঘাটাইল থানায় হত্যা মামলার অভিযোগ দায়ের করতে যাই। কিন্তু আমাদের কোনো অভিযোগ আমলে নেয়নি ঘাটাইল থানার ওসি মাকসুদ আলম। উল্টো আমাদের অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে থানা থেকে বের দেয়। পরে আমরা নিরুপায় হয়ে ন্যায় বিচারের আশায় আদালতে ছয়জনকে আসামি করে অভিযোগ দায়ের করি। আদালত তা আমলে নিয়ে বৃহস্পতিবার লাশ কবর থেকে উঠিয়ে ফরেনসিক রিপোর্টের নির্দেশ দিয়েছেন। আশাকরি এখন ন্যায় বিচার পাব।
এ বিষয়ে ঘাটাইল থানার ওসি মাকসুদ আলমের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগা করা হলে তিনি তা রিসিভি করেননি।
এ বিষয়ে এএসপি আমীর খসরু (গোপালপুর সার্কেল ) বলেন, মামলা না নেয়ার বিষয়টি সত্য নয়। ঘটনার পর আমি নিজে নিহতের বাড়িতে গিয়েছি। তখন কেউ এ ধরনের অভিযোগ করেননি। এ ছাড়া যদি কোনো পুলিশ সদস্য কারো সঙ্গে খারাপ আচরণ করে থাকে তাহলে যথাযথভাবে অভিযোগ জানালে তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। রিপোর্টে হত্যা প্রমাণিত হলে সেই মোতাবেক যথাযথ কার্যক্রম পরিচালিত হবে।
এ ব্যাপারে ঘাটাইলের ইউএনও ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. কামরুল ইসলাম বলেন, আদালতের নির্দেশ প্রাপ্ত হয়ে যথাযথ প্রক্রিয়া অনুসরণ করে লাশ উঠানো শেষে ফরেনসিক প্রতিবেদনের জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

শেয়ার করুন

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.

0 coment rios:

ধন্যবাদ আপনার সচেতন মন্তব্যের জন্য।