বুধবার, ১৮ ডিসেম্বর, ২০১৯

মসজিদ উদ্বোধন করতে গিয়ে অপ্রচারের শিকার হলেন,বিশিষ্ট শিল্পপতি আতাউর রহমান ভূঁইয়া মানিক!!



ফখরুদ্দিন মোবারক শাহ রিপন,স্টাফ রিপোর্টারঃ
তৌহিদা-মানিক ট্রাস্টের অর্থায়নে নোয়াখালীর সোনাইমুড়ি উপজেলায় নির্মিত ‘তৌহিদা রহমান উপজেলা পরিষদ জামে মসজিদের শুভ উদ্বোধন করেছেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আতাউর রহমান ভূঁইয়া (মানিক)।

এসময় উপস্থিত ছিলেন নোয়াখালী-১ আসনের সংসদ সদস্য এইচ এম ইব্রাহিম, সোনাইমুড়ী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান খন্দকার রুহুল আমিন।

কিন্তু সংবাদ টুয়ান্টিফোর নামে একটি ভূয়া নিউজ পোর্টাল তমা গ্রুপের চেয়ারম্যান ও নোয়াখালী জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আতাউর রহমান ভূঁইয়া মানিককে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য “ব্যান্ডপার্টি নিয়ে মসজিদ উদ্বোধন” শিরোনামে মিথ্যা ও বানোয়াট নিউজ এবং ভিডিও প্রকাশ করে।

জানা যায়, সকালে বিজয় দিবস উপলক্ষে মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। এতে ব্যান্ড পার্টি আনা হয়। আর দুপুরে মসজিদ উদ্বোধনের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। তৌহিদা-মানিক ট্রাস্টের আওতায় প্রায় ৫ কোটি টাকা ব্যয়ে মসজিদটি নির্মাণ করেছেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মো. আতাউর রহমান ভূঁইয়া (মানিক)। অথিতিদেরকে নিয়ে তিনি সোনাইমুড়ি উপজেলার মসজিদটি উদ্বোধন করেন।

এসময় উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক খলিলুর রহমান বলেন, এই ঘটনা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট । মসজিদ উদ্বোধন হয়েছে বেলা ২টার দিকে। আর যে ভিডিওটি ব্যান্ডপার্টিসহ ছড়ানো হয়েছে। সেটা মহান বিজয় দিবসে উপলক্ষে বেলা ১১টার দিকের।

এ বিষয়ে তমা গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার আনিসুর রহমান বলেন, মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে সোনাইমুড়ী উপজেলা প্রশাসনের দিনব্যাপী অনুষ্ঠান ছিল। বিজয় দিবস উপলক্ষে বেলা ১১টায় উপজেলা মাঠে মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যোগদেন নোয়াখালী জেলা আওয়ামীলীগ সহ-সভাপতি আতাউর রহমান ভূঁইয়া মানিক। মসজিদ উদ্বোধন হয় বেলা ২টায়। যেটি উপজেলায় অবস্থিত। সংবর্ধনায় যোগদানের পূর্বে দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে তিনি ছবি তুলেছেন। সেখানে একজন নেতা ভিডিও করেছেন। তখন উপজেলা প্রশাসনের ব্যান্ডপার্টি তাদের নিজস্ব কাজে ছিল।

এ বিষয়ে তমা গ্রুপের চেয়ারম্যান ও নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি আতাউর রহমান ভূঁইয়া মানিক বলেন, মসজিদ উদ্বোধনের সময় এ ধরনের কোন ঘটনা ঘটেনি। এটা সম্পূর্ণ অপপ্রচার আমার বিরুদ্ধে।আমি সাংবাদিকদের মাধ্যমে এই রিপোর্টের তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাই।##

শেয়ার করুন

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.