সোমবার, ২০ এপ্রিল, ২০২০

ইতালিতে এক সপ্তাহে সবচেয়ে কম মৃত্যুর রেকর্ড




মহামারি করোনাভাইরাসে স্তব্ধ পুরো পৃথিবী। এরইমধ্যে করোনার ছোবলে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ইউরোপ মহাদেশ। বিশ্বব্যাপী প্রাণহানির প্রায় দুই-তৃতীয়াংশই হয়েছে এই মহাদেশেই। এরইমধ্যে সবচেয়ে শোচনীয় অবস্থা ইতালির। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে ১ লাখ ৭৮ হাজার ৯৭২ জন। মৃত্যু হয়েছে ২৩ হাজার ৬৬০ জনের।


তবে আশার কথা হলো, ইতালিতে ধীরে ধীরে কমে আসছে প্রাণঘাতী এই ভাইরাসের সংক্রমণ। তবে এখনো থামেনি মৃত্যুর মিছিল। গত শনিবার দেশটিতে করোনায় প্রাণ হারিয়েছেন আরো ৪৩৩ জন, যা গত এক সপ্তাহের মধ্যে সর্বনিম্ন। একইসঙ্গে দেশটিতে কমেছে আক্রান্তের সংখ্যা। রোববার ইতালির সিভিল প্রটেকশন এজেন্সি এ তথ্য জানিয়েছে।

সংস্থাটি জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ইতালিতে ৪৩৩ জন করোনা আক্রান্তের মৃত্যু হয়েছে। এই সময় আক্রান্ত হয়েছে ৩ হাজার ৪৭ জন। শনিবার এই আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৩ হাজার ৪৯১।

১১ এপ্রিল ইতালিতে করোনায় ৬১৯ জনের মৃত্যু হয়। একদিন পর ১৪ এপ্রিল এই সংখ্যা ৬০২ এ নেমে আসে। এরপর আর মৃতের সংখ্যা ৬০০ অতিক্রম করেনি। সর্বশেষ শনিবার মৃতের সংখ্যা ৫০০ এর নিচে নেমে আসে। ওই দিন ৪৮২ জনের মৃত্যু রেকর্ড করা হয়।

মার্চের শেষ দিকে ইতালিতে করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যুর সর্বোচ্চ সংখ্যা রেকর্ড করা হয়। এরপরই সংখ্যা নিম্মমুখী হতে শুরু করে। অবশ্য প্রায় ছয় সপ্তাহ ধরে লকডাউনে থাকা দেশটিতে করোনায় মৃত্যুর হার দ্রুত নিম্নমুখী হবে তা এখনই আশা করা যাচ্ছে না।

রয়টার্স জানিয়েছে, ২১ ফেব্রুয়ারি থেকে ইতালিতে করোনার প্রাদুর্ভাবের পর এখন পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা ২৩ হাজার ৬৬০ এ দাঁড়িয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের পর বিশ্বের কোনো দেশে করোনায় মৃত্যুর এটাই সর্বোচ্চ সংখ্যা।



উল্লেখ্য, গত ৯ মার্চ থেকে লকডাউন চলছে ইতালিতে, থাকবে ৩ মে পর্যন্ত। এরপর সেটি তুলে নেয়া হবে কিনা বা কীভাবে তোলা হবে সে বিষয়ে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত জানায়নি কর্তৃপক্ষ।


শেয়ার করুন

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.