বৃহস্পতিবার, ৭ মে, ২০২০

গোসাইরহাটে ভাতিজার হাতে চাচা খুন, গ্রেফতার ২



শরীয়তপুরের গোসাইরহাট উপজেলায় জমিজমার বিরোধের জেরে ভাতিজার হাতে খুন হয়েছেন চাচা। নিহত মোজাফফর সরদারের (৫৫) বাড়ি উপজেলার চরধীপুর গ্রামে। ঘটনায় ২ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গোসাইরহাট থানা ও স্থানীয় সূত্র জানায়, গোসাইরহাট উপজেলার চরধীপুর এলাকার মোজাফফর সরদার ও তার আপন ভাই শাহজাহান সরদার এর মধ্যে জমিজমা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছিল। তারই জের ধরে বুধবার দুপুরে মোজাফফর সরদারের জমি সীমানায় শাহজাহান সরদার গাছ রোপন করতে গেলে বাধা দেয় মোজাফফর সরদার।

এতে শাহজাহান সরদার ও তার ছেলে আনিচ সরদার ক্ষিপ্ত হয়ে তার ওপর চড়াও হয় এবং কিল-ঘুসিসহ মারধর করতে থাকে। এক পর্যায়ে মোজাফফর সরদারের স্ত্রী ছাড়াতে এলে তার ওপরে মারধর করা হয়।

মোজাফফর অসুস্থ হয়ে পড়লে চিকিৎসার জন্য গোসাইরহাট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে তাকে সদর হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয়া হয়। এরপর অবস্থার আরও অবনতি হলে সদর হাসপাতাল উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর হাসপাতালে রেফার্ড করেন। ফরিদপুর হাসপাতালে পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেয়ার পরামর্শ দেন। কিন্তু ঢাকায় নেয়ার অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

ঘটনায় ৪ জনকে আসামী করে নিহতের ছেলে কাউছার সরদার হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। আসামিরা হচ্ছেন আনিস সরদার (২৫), শাহজাহান সরদার (৬০), মনসুরা বেগম (৫০) ও নিপা আক্তার (২৫)। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য শরীয়তপুর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

নিহত মোজাফফর সরদারের ছেলে কাউসার সরদার জানান বুধবার আমাদের বাড়ির সীমানার রাস্তায় চাচা শাজাহান গাছ রোপন করছিলেন। তখন বাবা তাকে নিষেধ করেন‌। এতে চাচা শাহজাহান সরদার বাবার ওপর কিল-ঘুসি মারে। এক পর্যায়ে তার ছেলে আনিস সরদার মেহগনির গুড়ি দিয়ে তাকে আঘাত করতে থাকে। ঘটনাস্থলেই বাবা লুটিয়ে পড়েন ও রক্তাক্ত হন। চিকিৎসার জন্য আমরা বিভিন্ন হাসপাতালে তাকে নিয়ে যাই অবশেষে ঢাকা নেয়ার পথে বাবা মারা যান। আমরা থানায় মামলা করেছি। এর সুষ্ঠু বিচার চাই।

শেয়ার করুন

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.