বৃহস্পতিবার, ১৪ মে, ২০২০

মুক্তি কক্সবাজারের মানবিক সহায়তা প্রদান কার্যক্রম অব্যাহত।



করোনা সংক্রমণের কারণে খেটে-খাওয়া, দরিদ্র মানুষদের জন্য মুক্তি কক্সবাজারের মানবিক সহায়তা কার্যক্রম পরিচালিত হয়েছে আজও। এ পর্যায়ে  সহযোগিতা করছে চিল্ড্রেন অন দ্যা এজ।

এদফায় চিল্ড্রেন অন দ্য এজের সহায়তায় কক্সবাজার সদর, রামু ও উখিয়া উপজেলায় মোট ৩০০০ পরিবারকে ত্রান সহায়তা দেওয়া হবে।

আজ (১৪ই মে, ২০২০) তারই অংশ হিসেবে কক্সবাজার উপজেলার ফিশারিঘাট মুক্তি স্কুলে ৯০ পরিবার ও কুতুবদিয়া পাড়া মুক্তি স্কুলে ১০৯ পরিবার এবং  পোকখালী ইউনিয়নের ১৫০ পরিবার মোট ৩৪৯ পরিবারের মধ্যে মানবিক সহায়তা প্রদান করা হয়। এই সহায়তার মধ্যে ছিল ২৫ কেজি আতপ চাল, ৪ কেজি মসুর ডাল, ২ লিটার সোয়াবিন তেল, ২ কেজি চিনি, ১কেজি সুজি ও ১ কেজি লবন।

ফিশারিঘাট মুক্তি স্কুলে সহায়তা প্রদান স্থানে উপস্থিত ছিলেন মুক্তি কক্সবাজার এর প্রধান নির্বাহী বিমল চন্দ্র দে সরকার, অডিট ম্যানেজার আব্দুস সামাদ, সাপ্লিমেন্টাল এডুকেশন প্রোগ্রামের টেকনিক্যাল অফিসার সালাউদ্দিন সোহাগ, ফিশারিঘাট মুক্তি স্কুলের ম্যানেজমেন্ট কমিটির সভাপতি বজলুর রহমান ভুট্টো সহ এই স্কুলের শিক্ষকবৃন্দ।

অন্যদিকে কক্সবাজার পৌরসভার কুতুবদিয়া পাড়া মুক্তি স্কুলের সহায়তা প্রদান স্থানে উপস্থিত ছিলেন কক্সবাজার পৌরসভার ০১ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর এস অাই এম অাক্তার কামাল, মুক্তি কক্সবাজারের প্রোগ্রাম সমন্বয়কারী (এডুকেশন) শহীদ মোঃ রেজা, বন্দরপাড়া মুক্তি স্কুল -০২ এর স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মোঃ মোস্তফা কামাল, সাপ্লিমেন্টাল এডুকেশন প্রোগ্রামের প্রকল্প ব্যবস্থাপক সুদেব রুদ্র, উপকরণ উন্নয়ণ কর্মকর্তা (আইসিটি) সূজয় কান্তি পাল, ফাইন্যান্স ও লজিস্টিক অফিসার অাব্দুল গনি এবং মুক্তি স্কুলের শিক্ষকবৃন্দ।

কক্সবাজারে সদরের পোকখালী ইউনিয়নে সহায়তা প্রদান স্থানে উপস্থিত ছিলেন পোকখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রফিক অাহমদ, হেলথ লজিস্টিকস এন্ড ডিস্ট্রিবিউশন অফিসার প্রদীপ্ত ভাস্কর রক্ষিত, টিম লিডার ওসমান গনি, প্রজেক্ট অফিসার সমরজিত দাশ রাজ, ফয়সাল সাকিব।

এছাড়া স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। দুঃসময়ে মানুষের পাশে মানবিক সহায়তা প্রদান কার্যক্রম সম্পর্কে উপস্থিত ইউএনও, ইউপি চেয়ারম্যান, ইউপি সদস্য ও স্থানীয় সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা মুক্তি কক্সবাজারকে ধন্যবাদ জানান।

শেয়ার করুন

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.