শুক্রবার, ৫ জুন, ২০২০

সেভেন আপের বোতলে কীটনাশক, পান করে প্রাণ গেল ২ বোনের








পাবনার ঈশ্বরদীতে সেভেন আপ মনে করে ক্ষেতের আগাছা নিধনের জন্য ঘরে রাখা কীটনাশক পান করে শিশু দুই বোনের মৃত্যু হয়েছে। মৃত খাদিজা (৪) ও  রাহিমা খাতুন (৮) ঈশ্বরদী পৌর এলাকার অরণকোলা গ্রামের বাসিন্দা অটোরিকশাচালক বাবু মণ্ডলের মেয়ে।


গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাহিমার মৃত্যু হয়। তার আগে বুধবার রাতে রাহিমার ছোট বোন খাদিজা ঢাকার সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়।


স্থানীয়রা জানান, গত মঙ্গলবার মায়ের সঙ্গে শিশু খাদিজা, রাহিমা ও ঋতু খাতুন দাশুড়িয়ার আথাইল শিমুল গ্রামে তাদের নানাবাড়িতে বেড়াতে যায়। ওই শিশুদের মামা রোকন উদ্দিন তাঁর ঘরের টেবিলে একটি সেভেন আপের বোতলে কীটনাশক রেখে বাইরে যান। এ সময় সেভেন আপ ভেবে বোতল থেকে ওই কীটনাশক গ্লাসে ঢেলে পান করে তিন বোনসহ আরো কয়েকজন শিশু। বড়রা সামান্য পান করে উটকো গন্ধের কারণে বমি করে দেয়। কিন্তু ছোট্ট খাদিজা ওই কীটনাশকের বিষক্রিয়ায় নিস্তেজ হয়ে পড়ে। দ্রুত তাকে প্রথমে স্থানীয় চিকিৎসক ও পরে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে তাদের ঢাকার সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বুধবার রাতে তার মৃত্যু হয়।

মুলাডুলি ইউনিয়ন স্বাস্থ্যকেন্দ্রের পরিবারকল্যাণ সহকারী আজিজা খাতুন বর্ণা জানান, রাহিমার শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক ছিল। অবশেষে সেও তার ছোট বোনের মতো মারা যায়।

ঈশ্বরদী পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আবুল হাসেম বলেন, শিশুটির বাবার পক্ষে চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে না পারায় স্থানীয়দের সহযোগিতায় হাসপাতালে নেওয়া হলেও ছোট মেয়েটির মতো শেষ পর্যন্ত বাঁচানো যায়নি রাহিমাকেও।



শেয়ার করুন

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.