শুক্রবার, ৫ জুন, ২০২০

কুড়িগ্রামে সাংবাদিক কে প্রাণনাশের হুমকি!






রোকন, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি:
কুড়িগ্রামে   চাল আত্নসাতের অভিযোগে খবর সংগ্রহ কালে এক মহিলা ইউপি সদস্য    বৃহস্পতিবার (২ জুন) গভীর রাতে মাল্টিমিডিয়া অনলাইন নিউজ পোর্টাল বার্তা টুয়েন্টিফোর এর  কুড়িগ্রাম জেলা প্রতিনিধিকে ফোনে জীবন নাশের হুমকি দিয়েছে বলে অভিযোগ করেন সাংবাদিক জুয়েল রানা ।

সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা যায়, করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) এই সংকটকালে কুড়িগ্রামে একটি অসহায় পরিবারের ৩৯০ কেজি চাউল আত্নসাতের অভিযোগ উঠেছে এক মহিলা ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে। ওই মহিলা ইউপি সদস্যের নাম মোছা আফরোজা বেগম। তিনি কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার পাঁচগাছী ইউনিয়নের ৭.৮ ও ৯ নং ওর্য়াডের সংরক্ষিত মহিলা ইউপি সদস্য।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বাংলাদেশ সরকারের খাদ্য সহায়তা কর্মসূচি আওতায় ১০ টাকা তূর্তকী মূল্যের চাউল একটি দুঃস্থ পরিবারের ৩৯০ কেজি চাউল আত্মাসাত করার অভিযোগ উঠেছে ইউনিয়ন পরিষদের সংরক্ষিত ঐ মহিলা ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে। এ বিষয়ে সংবাদ প্রকাশের জন্য  তথ্য সংগ্রহের পর ঐ সাংবাদিককে জীবন নাশের হুমকি দিয়েছে ইউপি সদস্যের স্বামী ও অজ্ঞাত এক ব্যক্তি।

এ ব্যাপারে সাংবাদিক জুয়েল রানা আজ শুক্রবার.  (৫ জুন ) কুড়িগ্রাম সদর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেন । এ বিষয়ে

অভিযুক্ত ইউপি সদস্য মোছা আফরোজা বেগম বার্তা বাজার কে বলেন,”সামান্য ভুল বুঝাবুঝির কারণে এমন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেছে,আমি ফোনে তাকে প্রান নাশের হুমকি দেইনি,শুধু একটু রাগারাগি করেছি ।

সাংবাদিক জুয়েল রানা জানান, এক দুঃস্থ পরিবারের ৩৯০ কেজি চাউল আত্মাসাত করার অভিযোগ পেয়ে তথ্য সংগ্রহ করার পর আজ গভীর রাতে ফোনে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ  ও জীবননাশের হুমকি দিয়েছে ওই ইউপি সদস্যের স্বামী ও অজ্ঞাত এক ব্যক্তি।”

  কুড়িগ্রাম প্রেসক্লাব’র সাধারণ সম্পাদক খ.ম. আতাউর রহমান বিপ্লব বলেন,”সাংবাদিক জুয়েল একজন সৎ ছেলে,তাকে প্রাণনাশের হুমকি দিছে যা খুব দুঃজনক ,আমরা এর প্রতিবাদ জানাই ।

কুড়িগ্রামের সিনিয়র সাংবাদিক শ্যামল ভৌমিক জানান,সাংবাদিককে গালিগালাজ ও প্রাননাশের হুমকি দেয়ায়  আমরা তীব্র প্রতিবাদ জানাই । দ্রুত দোষীদের শাস্তি দাবি করছি ।

কুড়িগ্রাম সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাহাফুজুর রহমান জানান, ওই সাংবাদিক থানায় অভিযোগ করেছে,আমরা তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেবো ।

শেয়ার করুন

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.