রবিবার, ১০ অক্টোবর, ২০২১

আসন্ন ইউপি নির্বাচনে ২নং রত্নাপালং ইউনিয়নের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী নুরুল কবির চৌধুরীর নির্বাচনীর ঘরোয়া ৩য় বৈঠক সম্পূর্ণ।

 নিস্বব প্রতিবেদন:-




অদ্য ০৯অক্টুবর ২০২১ইং। রাত ৯ ঘাটিকার সময়, উখিয়া উপজেলার আওতাদিন ২নং রত্নাপালং ইউনিয়নের ইউপি নির্বাচনে আজ গয়ালমারা স্টেশন চত্বরে ঘরোয়া বৈঠক সম্পূর্ণ করেন গয়ালমারা স্টেশন চত্বরে। 


দিন যত যাচ্ছে ততই ঘনিয়ে আসছে ২নং রত্নাপালং ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে ২নং রত্নাপালং ইউনিয়নের সতন্ত্র প্রার্থী ও সাবে সফল চেয়ারম্যান জনাব, নুরুল কবির চৌধুরী ঘরোয়া বৈঠক ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্ন ভাবে গণসংযোগ শুরু করেছেন।


এবার ২নং রত্নাপালং ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে প্রতিটি ওয়ার্ডে এলাকা ধরে ঘরোয়া বৈঠক করেন, নুরুল কবির চৌধুরী। 


২নং রত্নাপালং ইউনিয়নের সর্বসাধারণের মুখে আলোচনায় রয়েছে এবারের চেয়ারম্যান প্রার্থীদের মধ্যে সৎ, যোগ্য  ও গরিবের বন্ধুদের মধ্যে জ্বয় হবে নুরুল কবির চৌধুরী । জনগণ বলছেন, এবারের নির্বাচনে  বিপুল ভোট পেয়ে বিজয়ী হবেন তিনি। এলাকাজুড়ে তার অবস্থান অন্যসব প্রার্থীদের চেয়ে অনেকটা ভালো রয়েছে। এর কারন তিনি সবসময় এ ইউনিয়নের সকলস্তরের লোকদের বিপদে আপদে তাদের পাশে দাড়িয়েছেন বাড়িয়ে দিয়েছে সহযোগিতা হাত। করোনাকালীন সময়ে এ ইউনিয়নের অনেক হতদরিদ্রের মাঝে খাদ্যসহায়তা, নগদ অর্থ বিতরনও করেছেন তিনি। নিজ উদ্যোগে কর্মহীন অসচ্ছল ব্যক্তিদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে খোজখবর রেখেছেন যাদের সংসারে সংকট দেখা দিয়েছিলো তাদেরকে ব্যক্তিগতভাবে আর্থিক সহযোগিতা দিয়েছেন। তাই দূর সময়ে গরীব অসহায় মানুষদের পাশে থাকার কারনেই আজ তিনি এ ইউনিয়নে উন্নয়নের রুপকার গরীবের নেতা হিসেবে উপাধি পেয়েছেন।

নুরুল কবির চৌধুরী।


এছাড়াও তিনি বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সামাজিক ও ব্যবসায়ী সংগঠনের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করে আসছেন। চা'য়ের দোকানে মুরব্বিদের একটা শব্দ ইউপি নির্বাচন। কবে হচ্ছে সেই নির্বাচন। ১১ নভেম্বর অনুষ্টিত হতে যাচ্ছে ২য় ধাপের ইউপি নির্বাচন কে হচ্ছে যোগ্য প্রার্থী? সবার মুখে এক শব্দ নুরুল কবির চৌধুরী  হবে এবারের চেয়ারম্যান। অনেক অসহায় মেয়েদের নিজ উদ্যেগে নিজের অর্থ ব্যয় করে বিয়ে দিয়েছেন। গৃহহীন অনেক মানুষকে ঘর দিয়ে সাহায্য করেছেন।এ ব্যাপারে আলহাজ্ব নুরুল কবির চৌধুরী বলেন, আমি এবারে ২নল রত্নাপালং ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে লড়ব ইনশাল্লাহ বিজয় আমার হবে। আমি প্রতীক যেটা পাইনা কেন এলাকার মানুষ যে ভালবাসা দিচ্ছে তাতে আমি চেয়ারম্যান নির্বাচিত  হতে কোন বাধা নেই। আমি নির্বাচিত হলে এলকায় কোন মাদক সন্ত্রাস অবৈধ কর্মকান্ড চলতে দেওয়া হবেনা। অতীতে যারা অবৈধ কাজে পশ্রয় দিয়েছিল সেই সুযোগ আমি দেবনা। সাধারন জনগনের অধিকার ফিরিয়ে আনা আমার একমাত্র লক্ষ্য। আমি সকলের কাছে দোয়া চাচ্ছি আপনারা আমার জন্য দোয়া করবেন। এবং আপনারা আশা রাখেন যে,এইভারে নির্বাচনে জয় হলে রত্নাপালংবাসী একটা মডেল ইউনিয়ন হিসাবে পাবে ইনশাআল্লাহ।


শেয়ার করুন

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.

0 coment rios:

ধন্যবাদ আপনার সচেতন মন্তব্যের জন্য।