মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর, ২০২১

ঝুঁকিপূর্ণ কাজে উ‌খিয়ায় শিশু শ্রমিক বাড়‌ছে

নিউজ ডেস্ক :

 


কক্সবাজা‌রের উ‌খিয়া উপজেলায় শিশু শ্রমিকের সংখ্যা দিনদিন বৃ‌দ্ধি পা‌চ্ছে। শিশুশ্রম ব‌ন্ধে আই‌নি প্রতি‌ক্রিয়া থাক‌লেও তা প্রতি‌রো‌ধে প্রশাস‌নের কোন ভু‌মিকা নজ‌রে পড়‌ছেনা। বিজ্ঞরা বল‌ছেন, শিশু‌কে স্কু‌লে না পা‌ঠি‌য়ে টমট‌মের চালক হিসা‌বে রাস্তায় বের ক‌রে দেয়া শিশু নির্যাতনেরই শা‌মিল।


শিশুশ্রম ব‌ন্ধে কোন প্রতি‌ক্রিয়া না থাকায় এ উপজেলার বিভিন্ন রাস্তায় টমট‌ম চালা‌তে দেখা যা‌চ্ছে। তাছাড়াও মু‌দির দোকান, গ‌্যা‌রেজ, ভাঙ্গারী, হোটেল-রেস্তোরাঁ, কাঁচাবাজার, মা‌ছের বাজার ও বাসাবাড়িতে কাজ করছে অনেক শিশু।



পিতৃহীন প‌রিবা‌রের এসব শিশু দারিদ্রতার  কারণে অর্থ রোজগারে নে‌মে পড়ায় শিক্ষার আলো থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

শিশু শ্রমিকরা পেটের তাগিদে মারাত্মক ও  ঝুঁকিপূর্ণ কাজেও অল্প বেতনে হাড়ভাঙ্গা পরিশ্রম কর‌ছে। বি‌শেষ ক‌রে টমটমের চালক হিসা‌বে কাজ করায় প্রতি‌দিন কোথাও না কোথাও দুর্ঘটনায় প‌তিত হ‌চ্ছে। ক্ষ‌তিগ্রস্থ হ‌চ্ছে সাধারণ মানুষ। শিশুদের অনেকেই পেটের দ্বা‌য়ে ই‌জিবাইক নিয়ে রাস্তায় নেমে পড়ে। বর্তমানে সড়ক দুর্ঘটনা অন্যতম কারণ এ শিশু চালক।


যে বয়সে শিশুদের স্কুলমু‌খি হওয়ার কথা সে‌ক্ষে‌ত্রে বিভিন্ন ঝুঁকিপূর্ণ কর্মে জড়িয়ে পড়ছে। পা‌রিবা‌রিক দরিদ্রতায় প‌ড়ে এসব শিশুরা বিভিন্ন ওয়ার্কশপ, পুরোনো গাড়ি মেরামত, ই‌জিবাইক, ওয়ার্কসপ, ভাগাড়সহ  বি‌ভিন্ন  কিছু সংগ্রহকা‌রি শ্রমের কাজ করছে।




এছাড়াও বিভিন্ন ধরনের গাড়ির হেলপার, ওয়ার্কস‌পের ওয়েল্ডিংসহ নানা ঝুঁকিপূর্ণ কাজে শিশুদের দি‌য়ে কাজ করা‌নো হচ্ছে। উ‌খিয়া সদর, কোটবাজার, ম‌রিচ‌্যা, পালংখালী, থাইনখালী, বালুখালী, কুতুপালং সহ বি‌ভিন্নস্থা‌নে এসব শিশুদের ঝু‌কিপুর্ণ কা‌জে দেখা যায়। উ‌খিয়া উপ‌জেলায় এসব শিশু শ্রমিক‌দের দি‌য়ে কাজ করা‌নো অন্তত দুই শতা‌ধিক ছোট বড় দোকান র‌য়ে‌ছে।


স্থানীয় স‌চেতন‌দের অ‌ভিমত, এসব এলাকায় ভ্রাম‌্যমান আদাল‌তের মাধ‌্যমে ত‌ড়িৎ কার্যক‌রি পদ‌ক্ষেপ গ্রহণ করা প্রয়োজন। অন‌্যথায় এসব শিশু‌দের বিরাট এক‌টি অংশ মাদক সহ নানা অপরাধ সংগঠ‌নে নে‌মে যে‌তে পা‌রে।

সীমান্তবাংলা


শেয়ার করুন

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.

0 coment rios:

ধন্যবাদ আপনার সচেতন মন্তব্যের জন্য।