রবিবার, ১০ অক্টোবর, ২০২১

পুনরায় ০৩নং ওয়ার্ডের মানুষের সেবা করতে চান মাঃনাছির উদ্দিন।

 সাদ্দাম হোসেন (লোহাগাড়া প্রতিনিধি) 




পুটিবিলা ইউনিয়নের ০৩নং ওয়ার্ড তথা দক্ষিণ পুটিবিলা মৌলানা পাড়ার কৃতি সন্তান মাষ্টার নাছির উদ্দিন পিতা মরহুম ছিদ্দিক আহামদ সওদাগর মাতা জুলেখা বেগম।

বিগত ২০১৬ সালের পুটিবিলা ইউপি.নির্বাচনে ০৩ ওয়ার্ডে বিপুল পরিমাণ ভোট পেয়ে বিজয় লাভ করেন। বিগত ২০১৬ সাল থেকে নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে ২০২১ইং  চলমান  তিনি ০৩নং ওয়ার্ডেন জনগণের সেবা দিয়ে আসতেছেন আজঅব্দি।সামনে আবার ইউপি নির্বাচন তাই আসন্ন নির্বাচনে মাস্টার নাছির উদ্দিনকে ০৩নং ওয়ার্ডের জনসাধারন ইউপি সদস্য হিসেবে পুনরায়  চাই।


মাস্টার নাছির উদ্দিনের শিক্ষা জীবন ও সামাজিক অবস্হানঃ


মাস্টার নাছির উদ্দীন স্হানীয় প্রতিষ্ঠান থেকে ইবতেদায়ী ও মাদ্রাসা থেকে দাখিল ও ফাজিল  পাস করেন, পরে চট্টগ্রামের মহসিন কলেজ এ ইংরেজি বিষয়ে মাস্টার্স শেষ করেন।

এরপর মাস্টার নাছির উদ্দীন পুটিবিলা আল-আমিন কিন্ডারগার্ডেন স্কুলের প্রধান শিক্ষক হিসেবে যোগদান করেন পরে তিনি পুটিবিলার আর বেশ কয়েকটা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষকতা করেন যার ফলস্বরুপ শিক্ষার্থীর অভিভাবক গণ মাষ্টার নাছির উদ্দীন থেকে নির্বাচনে উৎসাহ-উদ্দীপনা যোগিয়ে নির্বাচনে অংশ নিতে অনুরোধ করলে মাষ্টার নাছির উদ্দীন ২০১৬ইং সালে শিক্ষকতা পেশা ছেড়ে দিয়ে নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করেন এবং নির্বাচনে বিপুল ভোটে বিজয় লাভ করে ইউ পি সদস্য নির্বাচিত হন।


এরপর নাছির উদ্দীন হয়ে মানবতার সেবক, দিন-রাত মানুষের সেবাই নিজেকে নিয়োজিত করে আজ ০৩নং ওয়ার্ড আপামর জনসাধারণের মনে স্হান করে নিয়েছেন।


এবারও আসন্ন পুটিবিলা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ০৩নং ওয়ার্ডের জনগণ মাষ্টার নাছির উদ্দীনকে পুনরায় মেম্বার হিসেবে বিজয় করতে চাই বিগত দিনের মতন।


সংবাদের প্রতিবেদক মাষ্টার নাছির উদ্দীনের কাছ থেকে নির্বাচনে অংশ গ্রহণের বিষয়ে জিঙ্গেস করলে,মাষ্টার নাছির উদ্দীন প্রতিবেদককে বলেন,

আমি বিগত (০৫)পাঁচটি বছর ০৩নং ওয়ার্ডের মানুষের সেবা দিয়ে আসছি,ইনশাআল্লাহ সামনের দিন গুলোতেও মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাব,কারণ সেবা হচ্ছে আমার মূলমন্ত্র।

ইতিমধ্যে ০৩নংওয়ার্ডের জনসাধারণ আমাকে পুনরায় নির্বাচনে অংশ নিতে উদ্বুদ্ধ করছে, ইনশাআল্লাহ আমি জনগণের এই ভালবাসা নিয়ে নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করব।

সকলের ভালবাসা ও দোয়া চাই।


মেম্বার পদপ্রার্থী মাষ্টার নাছির উদ্দীন।


শেয়ার করুন

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.

0 coment rios:

ধন্যবাদ আপনার সচেতন মন্তব্যের জন্য।