শুক্রবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০২১

উখিয়ায় রোগীকে মেরে ঘরে তালাবদ্ধ করে কথিত ডাক্তার দম্পতি চম্পট!

নিউজ ডেস্ক ::




রোগীকে ভূল চিকিৎসা করে মেরে ফেলে নিজ ঘর কাম চেম্বারে তালাবদ্ধ করে পালিয়ে গেল কথিত ডাক্তার দম্পতি। দীর্ঘক্ষণ খোঁজাখুঁজির পর অবশেষে ভুয়া ডাক্তারের ঘরের তালা ভেঙে রোগীর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠায় পুলিশ।


জানা গেছে, উখিয়ার কুতুপালং -১৭ নাম্বার ক্যাম্পের এ- ব্লকের রোহিঙ্গা রোস্তম আলীর স্ত্রী শাহিদা খাতুন (৫৩) এলার্জি জনিত রোগের চিকিৎসা করাতে একই ব্লকের কথিত রোহিঙ্গা ভুয়া ডাক্তার মোঃ আলমের কাছে যায়।


বুধবার (৮ ডিসেম্বর) সকাল ৮ টায় ডাক্তারের কাছে গেলেও রাত ৮ টায়ও ঘরে না আসায় স্বামী ও আত্মীয় স্বজনরা খোঁজাখুঁজি করতে থাকে।


রাতে ঐ সময় ডাক্তার মোঃ আলমের ঘরে গিয়ে ঘর তালাবদ্ধ দেখতে পায় স্বজনরা। স্বজনদের সন্দেহ হলে তারা ডাক্তারের ঘরের তালা ভেঙে ঘরে ঢুকে শাহিদা খাতুনকে মৃত অবস্থায় দেখতে পায়। পরে ক্যাম্পের নিরাপত্তার দায়িত্বে নিয়োজিত এপিবিএন পুলিশকে ঘটনা জানায় বলে জানা গেছে।


কুতুপালং ইরানী পাহাড় ক্যাম্পের এপিবিএন পুলিশ বিষয়টি উখিয়া থানাকে অবহিত করে।


উখিয়াস্হ ১৪ এপিবিএন এর অধিনায়ক মোঃ নাইমুল হক বলেন, উখিয়া থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে লাশের সুরতহাল প্রস্তুত করতঃ লাশ ময়না তদন্তের জন্য নিয়ে যায়।


ধারণা করা হচ্ছে, পল্লী চিকিৎসক মোঃ আলম ও তার স্ত্রী পল্লী চিকিৎসক হাবিয়া বেগম এর ভুল চিকিৎসার ভিকটিমের মৃত্যু হয়েছে। পল্লী চিকিৎসক মোঃ আলম ও তার স্ত্রী পল্লী চিকিৎসক হাবিয়া বেগম ঘটনার পর হতে পলাতক রয়েছে।

কক্সবাজার জার্নাল


শেয়ার করুন

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.

0 coment rios:

ধন্যবাদ আপনার সচেতন মন্তব্যের জন্য।