বৃহস্পতিবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২২

করিমের ১৯১ভরি অবৈধ স্বর্ণ পাচার রুখে দিলো র‍্যাব-১৫ সদস্যরা






কক্সবাজারের উখিয়ার পালংখালী ইউনিয়নে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ অবৈধ স্বর্ণ সহ এক চোরাকারবারিকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-১৫ সদস্যরা। গ্রেফতার চোরাকারবারি টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের মনিয়াঘোনা এলাকার ঠান্ডা মিয়ার ছেলে করম আলী প্রকাশ করিম(৩৭)।


বৃহস্পতিবার(১৭ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ১১টায় সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য নিশ্চিত করেন র‍্যাব-১৫ অধিনায়ক লে. কর্ণেল খায়রুল ইসলাম সরকার।


তিনি বলেন,১৬ ফেব্রুয়ারি সকালে র‍্যাব-১৫ সদস্যারা গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, একটি সংঘবদ্ধ চক্র সরকারী শুল্ক ফাঁকি দিয়ে অবৈধ স্বর্ণ চোরাচালানের মাধ্যমে পার্শ্ববর্তী দেশ মায়ানমার থেকে উখিয়া উপজেলার পালংখালী সীমান্তবর্তী এলাকা দিয়ে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে পাচার করবে। উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে র‍্যাব-১৫ এর একটি চৌকষ আভিযানিক দল পালংখালী এলাকায় বিশেষ কৌশলে চেকপোস্ট স্থাপন করে তল্লাশী অভিযান শুরু করে। তল্লাশীর একপর্যায়ে একজন ব্যক্তি চেকপোস্টের সামনে আসলে তার আচরণ ও গতিবিধি সন্দেহজনক মনে হয় এবং দ্রুত চেকপোস্ট এলাকা থেকে পালানোর চেষ্টা করে। পালানোর সময় র‍্যাব ১৫ এর আভিযানিক দল তাকে আটক করে এবং পলায়নের কারণ জিজ্ঞাসা করে। জিজ্ঞাসাবাদে আটককৃত ব্যক্তি বিভিন্ন অসংলগ্ন কথাবার্তা বলে ও সন্দেহজনক আচরণ করে এবং সে জানায় তার পরিচয় করম আলী প্রকাশ করিম (৩৭)।


র‍্যাব-১৫ অধিনায়ক আরও জানান,ধৃত ব্যক্তির দেহ তল্লাশী করে ৬টি স্বর্ণের বার,৪টি নেকলেস, ৩৩টি গলার চেইন, ১৭টি চুড়ি, ৩৫জোড়া কানের দুল, ১৫টি লকেট, ১২টি নাকফুল, ১৬টি আংটিসহ ১৯১ ভরি ৬ আনা স্বর্ণালংকার পাওয়া যায়, যার আনুমানিক বাজার মূল্য ১কোটি ২৬লাখ ০৯ হাজার ৪শ ৫৯ টাকা। উদ্ধারকৃত স্বর্ণের বার ও অলংকারের বিষয়ে তার নিকট বৈধ কাগজপত্র দেখতে চাইলে সে তা দেখাতে ব্যর্থ হয়।


গ্রেফতার চোরাকারবারির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ প্রক্রিয়াধীন বলে জানান তিনি।

কক্সবাজার জার্নাল


শেয়ার করুন

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.

0 coment rios:

ধন্যবাদ আপনার সচেতন মন্তব্যের জন্য।