বৃহস্পতিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী, ২০২২

নিহত ৬ ভাইয়ের পরিবার পাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রীর উপহার ৮টি বাড়ি ও অর্থ সহায়তা





কক্সবাজারের চকরিয়ার মালুমঘাটে সড়ক দুর্ঘটনায় একই পরিবারের নিহত আপন ৬ ভাইয়ের পরিবারকে দেওয়া হচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর উপহার মুজিববর্ষের ৮টি নতুন বাড়ি।


বুধবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মোঃ মামুনুর রশিদ দ্বিতীয় এবারের মত ওই শোকাহত পরিবারকে সমবেদনা জানাতে গিয়ে এই প্রতিশ্রুতি দেন। সেই সাথে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে দেওয়া হয় নগদ সহায়তা ৩ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা।


জেলা প্রশাসক মোঃ মামুনুর রশিদ উপস্থিত সাংবাদিকদের জানান, দুর্ঘটনায় নিহত আপন ৬ ভাইয়ের প্রত্যেক পরিবারকে একটি করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহার জমিসহ মুজিববর্ষের ৮টি বাড়ি দেওয়া হবে। খুব শীঘ্রই বাড়ি তাদের কাছে হস্তান্তর করা হবে।


এছাড়াও তিনি জানান, নিহতদের পরিবারকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে আরো বড় পরিসরে আর্থিক সহায়তা এনে দেয়ার কাজ চলছে। এছাড়াও জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সবসময় পরিবারটির খবরাখবর রাখা হবে। এসময় চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জেপি দেওন, সহকারি পুলিশ সুপার (চকরিয়া সার্কেল) মোঃ তফিকুল আলম, সহকারি কমিশনার (ভূমি)মোঃ রাহাত উজ জামান ও চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ ওসমান গণিসহ সাংবাদিক ও স্থানীয় অসংখ্য নেতৃবৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন।


এদিকে একইদিন পরিবারটির পাশে দাঁড়াতে ও ঘটনাস্থল পরিদর্শনে আসেন হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ও আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর এডভোকেট রানা দাশগুপ্তের নেতৃত্বে ২৫ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল। তাঁরাও পরিবারটিকে নগদ আর্থিক সহায়তা দিয়েছেন।


উল্লেখ্য, গত ৮ ফেব্রুয়ারি ভোররাতে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহা-সড়কের চকরিয়া উপজেলার ডুলাহাজারা ইউনিয়নের মালুমঘাটে পিতার শ্রাদ্ধ অনুষ্ঠান শেষে বাড়ি ফেরার পথে পিকআপ ভ্যানের চাপায় একটি হিন্দু পরিবারের আপন পাঁচ ভাই ঘটনাস্থলেই নিহত হন। আহত হয় ভাইবোন আরো তিনজন।


পরে এ ঘটনার ১৪ দিন পর চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিসাধীন অবস্থায় মারা যায় তাদের আরো এক ভাই। একটি সড়ক দুর্ঘটনায় আপন ৬ ভাইয়ের মৃত্যুতে মাত্র আগও সচ্ছল পরিবারটি এখন অসহায়।

কক্সবাজার জার্নাল 


শেয়ার করুন

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.

0 coment rios:

ধন্যবাদ আপনার সচেতন মন্তব্যের জন্য।