শনিবার, ১৯ মার্চ, ২০২২

২৪ ঘণ্টায় অপহৃত যুবককে উদ্ধার করলো র‌্যাব

 



কক্সবাজারের টেকনাফে এক যুবককে অপহরণের মাত্র ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই উদ্ধার করেছে র‍্যাব-১৫। শুক্রবার (১৮ মার্চ) বিকাল ৪টার দিকে অভিযান চালিয়ে আবুল বশর নামে ওই যুবককে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়।



র‌্যাব-১৫'র সহকারী পরিচালক (ল’ অ্যান্ড মিডিয়া) সহকারী পুলিশ সুপার মো. বিল্লাল উদ্দিন জানান, কক্সবাজারের টেকনাফে বন্ধুর দাওয়াতে যাওয়া এক যুবক অপহরণ করা হয়েছে। ২০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে, টাকা না পেয়ে বশরকে রক্তাক্ত এবং জখম করার ভিডিও পাঠায় অপহরণচক্র। অপহরণের শিকার আবুল বশর, কক্সবাজারের চকরিয়ার বরইতলী প্রহরচাদা (৯ নং ওয়ার্ড) এলাকার বাসিন্দা। তিনি পরিবার নিয়ে বর্তমানে কক্সবাজার পৌরসভার নুনিয়ারছড়ায় বাস করছেন। 




তিনি জানান, অপহৃত আবুল বশরের স্ত্রী ছমুদা খাতুন (২৮) গত ১৮ মার্চ র‌্যাব-১৫ এ অভিযোগ করে বলেন, টেকনাফের রহিম (৩২) তার স্বামীর পরিচিত বন্ধু। গত কিছু দিন ধরে রহিম তার স্বামীকে টেকনাফে তার এলাকায় বেড়াতে যাওয়ার জন্য প্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন। সেই সূত্রে গত ১৭ মার্চ জাতীয় শিশু দিবসের দিন বিকাল ৪টার দিকে রহিমের উদ্দেশ্যে তার স্বামী কক্সবাজার থেকে টেকনাফ যেতে বাড়ি হতে বের হন। একই দিনগত রাত আনুমানিক ১১টা ৪০মিনিটের দিকে তার স্বামীর মোবাইল হতে রহিম ফোন করে ২০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করেন এবং টাকা না দিলে তার স্বামীকে হত্যা করে লাশ গুম করে ফেলা হবে বলে ভয়ভীতি দেখিয়ে ফোন কেটে দেয়। এর প্রায় ১৫-২০ মিনিট পরে তার স্বামীকে রক্তাক্ত এবং জখম করার একটি ভিডিও তার ইমু আইডিতে পাঠায় রহিম।



পরদিন সকালেই বিষয়টি র‌্যাব-১৫ জানলে তাদের একটি আভিযানিক দল কৌশলে টেকনাফে অভিযানে যায়। প্রযুক্তির মাধ্যমে বশরের অবস্থান টেকনাফের সাবরাং বাজার এলাকায় নিশ্চিত হয়ে বিকাল ৪টার দিকে ভিকটিমকে রক্তাক্ত উদ্ধার করে। 


তিনি আরও জানান, বশরকে উদ্ধারের আইনি পদক্ষেপ নিতে টেকনাফ সদর থানায় হস্তান্তর করে র‍্যাব। পরে রহিমদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দিয়ে সেখান থেকে বশরকে নিয়ে যান পরিবারের সদস্যরা। তবে, অপহরণ চক্রকে এখনো আটক করা যায়নি।

ইত্তেফাক 


শেয়ার করুন

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.

0 coment rios:

ধন্যবাদ আপনার সচেতন মন্তব্যের জন্য।