শনিবার, ৯ এপ্রিল, ২০২২

উখিয়ায় ৩০ হাজার পিস ইয়াবাসহ মাদককারবারি শ.ম গফুর আটক






কক্সবাজারের উখিয়ার কুতুপালং টিভি টাওয়ারের সামনে বিশেষ অভিযান চালিয়ে ৩০ হাজার পিস ইয়াবাসহ আব্দুল গফুর প্রকাশ শ.ম গফুর নামের এক মাদককারবারিকে আটক করেছে র‍্যাব-১৫।


সে উখিয়ার উপজেলার বালুখালী কাস্টমস এলাকার নুরুচ্ছফা শফি ছেলে।



শনিবার (০৯ এপ্রিল) রাত দেড়টার দিকে তাকে আটক করে। এ সময় তার ব্যবহৃত মোটর সাইকেল জব্দ করা হয়।


র‍্যাব-১৫ এর সহকারী পরিচালক (ল’ এন্ড মিডিয়া) মোঃ বিল্লাল হোসেন প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানান, ধৃত শ.ম গফুর দীর্ঘদিন যাবৎ বিভিন্ন অপরাধের মাধ্যমে উক্ত এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব তৈরি করেছে। এলাকায় সন্ত্রাসী হিসেবে সে অধিক পরিচিত। সে একটি গ্যাং তৈরি করে দীর্ঘদিন যাবৎ অত্র এলাকায় মাদক ব্যবসা, চাঁদাবাজি, মারামারিসহ বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকান্ড করে আসছে।



চট্টলা বাংলা.কম নামের অনুমোদন বিহীন অনলাইন পত্রিকায় সম্পাদক পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন মিথ্যা, বিভ্রান্তিকর তথ্য ও গুজব প্রচার করে আসছিল। এই নিউজ পোর্টালটি তার অবৈধ কর্মকান্ড গোপন করতে একটি বড় হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করে থাকে।


ইটভাটা, করাতকল, বিভিন্ন ব্যবসায়ীদের নিকট হতে ভুয়া সাংবাদিকতার আড়ালে সে নিয়মিত চাঁদা আদায় করে। তার অপরাধমূলক কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে কেউ কথা বললে তাকে সে বিভিন্নভাবে হয়রানি করে থাকে।


তার বিরুদ্ধে নাইক্ষ্যংছড়ি থানায় বিভিন্ন বিষয়ে একাধিক অভিযোগও রয়েছে। এলাকার চিহ্নিত অপরাধীদের সাথে যোগসাজসে সে প্রায়শই টাকার বিনিময়ে জনবিভ্রান্তিমূলক কর্মকান্ড পরিচালনা করে থাকে। তার বিরুদ্ধে এলাকার কেউ কথা বললে কিংবা তার কথামতো অপরাধ কর্মকান্ডে সহায়তা না করলে তাকে মারধরসহ বিভিন্নভাবে নির্যাতন করে থাকে।


সম্প্রতি সে এক প্রবাসীর স্ত্রীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তার ইচ্ছের বিরুদ্ধে দিনের পর দিন ধর্ষণ করেছে, যাহা নিয়ে বান্দরবান নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে মামলা রয়েছে।


বিজ্ঞপ্তিতে আরো জানানো হয়, শ.ম গফুর বিভিন্ন জনকে হত্যার উদ্দেশ্যে গুরুতর জখমসহ হুমকি প্রদর্শন, চাঁদা দাবী করতঃ চুরি ও ভয়ভীতি প্রদর্শনের অপরাধে নাইক্ষ্যংছড়ি থানায় একাধিক মামলা রয়েছে।


সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে সে মাদক ব্যবসায় জড়িত বলে এক মহিলার ভিডিও ক্লিপ ভাইরাল হয়েছে।


২০১৯ সালে কক্সবাজারের টেকনাফে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী উপস্থিতিতে মাদক কারবারীদের স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসা উপলক্ষে অনেক মাদক কারবারী আত্মসমর্পণ করেছিল। তখন আত্মসমর্পণকারী মাদক কারবারীদের জবানবন্দিতে শ.ম গফুর মাদক ব্যবসার সাথে সংশ্লিষ্টতার তথ্য পাওয়া যায় এবং তারা তাকে আত্মসমপূর্ণ করতে বললে সে তা প্রত্যাখ্যান করে গোপনে মাদক ব্যবসা চালিয়ে আসছিল।

Csb24


শেয়ার করুন

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.

0 coment rios:

ধন্যবাদ আপনার সচেতন মন্তব্যের জন্য।