রবিবার, ২৪ এপ্রিল, ২০২২

আওয়ামী লীগের তিন নেতাকে পিটিয়ে আবারো আলোচনায় এমপি বদি






ইউছুফ জানান, বর্ধিত সভা চলার সময় বদি পৌর কমিটিকে পাশ কাটিয়ে ওয়ার্ড কমিটিকে প্রাধান্য দিয়ে কথা বলছিলেন। তিনি বক্তব্যের প্রতিবাদ করায় সেখানে বদির সঙ্গে বাগবিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে বদি মঞ্চ থেকে নেমে হল রুমের বাইরে থেকে তার ক্যাডার বাহিনীকে ডেকে নিজেই ইউছুফকে কিল-ঘুষি মারতে থাকেন।


কক্সবাজারের টেকনাফে আওয়ামী লীগের দুই নেতাকে পেটানোর অভিযোগ উঠেছে সাবেক সংসদ সদস্য আবদুর রহমান বদির বিরুদ্ধে।


উপজেলা হল রুমে শুক্রবার ইফতারের আগে টেকনাফ পৌর আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় পেটানোর এই ঘটনা ঘটে।



 

তাৎক্ষণিকভাবে ঘটনাটি সংবাদমাধ্যমকে জানাতে রাজি হননি হামলার শিকার মো. ইউছুফ মনো। তিনি কক্সবাজার পৌর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি। হামলার শিকার আরেক নেতা হলেন পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ইউছুফ ভুট্টো,স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক মাহমুদুল হক।




শনিবার দুপুরে ইউছুফ জানান, বর্ধিত সভা চলার সময় বদি পৌর কমিটিকে পাশ কাটিয়ে ওয়ার্ড কমিটিকে প্রাধান্য দিয়ে কথা বলছিলেন। তিনি বক্তব্যের প্রতিবাদ করায় সেখানে বদির সঙ্গে বাগবিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে বদি মঞ্চ থেকে নেমে হল রুমের বাইরে থেকে তার ক্যাডার বাহিনীকে ডেকে নিজেই ইউছুফকে কিল-ঘুষি মারতে থাকেন। এ সময় তাকে বাঁচাতে এগিয়ে গেলে পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ইউছুফ ভুট্টোকেও বদি ও তার লোকজন বেধড়ক পেটান।


ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক আওয়ামী লীগ নেতা জানান, বদির নেতৃত্বে তার ভাই আবদুস শুক্কুর, নুর মোহাম্মদসহ সমর্থকরা সভা চলাকালে হলরুমে ঢুকে এ হামলা চালান। এতে আহত হন টেকনাফ পৌর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মো. ইউছুফ মনো, পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মো. ইউছুফ ভুট্টো ও উপজেলা আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক মাহমুদুল হক।



 


ঘটনার সময় ভিডিও করতে চাইলে উপজেলা আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক মাহমুদুল হককেও মারধর করে মোবাইল ছিনিয়ে নেন বদির লোকজন।



 

হামলার বিষয়ে জানতে বদির মোবাইলে একাধিকবার কল দিলেও তিনি রিসিভ করেননি। তার মোবাইলে ম্যাসেজ পাঠালেও জবাব মেলেনি


শেয়ার করুন

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.

0 coment rios:

ধন্যবাদ আপনার সচেতন মন্তব্যের জন্য।