শনিবার, ১৩ আগস্ট, ২০২২

দেশকে ভালোবেসে বৈধ পথে রেমিট্যান্স প্রেরনে সৌদি প্রবাসীদের প্রতি রাষ্ট্রদূত ড. মোহাম্মদ জাভেদ পাটোয়ারীর আহবান





হাকিকুল ইসলাম খোকন ,সিনিয়র প্রতিনিধিঃরিয়াদে রেমিট্যান্স প্রেরণে সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়  গত শুক্রবার ,১২ আগস্ট, ২০২২; দেশমাতৃকাকে ভালোবেসে দেশের প্রয়োজনে বৈধ পথে তথা ব্যাংকিং চ্যানেলে দেশে রেমিট্যান্স প্রেরনে সৌদি প্রবাসীদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন রাষ্ট্রদূত ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বিপিএম (বার)। তিনি গতকাল রিয়াদস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসে “বৈধ পথে রেমিট্যান্স প্রেরনের প্রয়োজনীয়তা, প্রতিবন্ধকতা ও সমাধানের উপায়” শীর্ষক আয়োজিত এক সেমিনারে একথা বলেন। রাষ্ট্রদূত বলেন, সৌদি আরবে বসবাসরত প্রায় ২৬ লক্ষ প্রবাসী বাংলাদেশি বৈধ পথে রেমিট্যান্স প্রেরণ করলে দেশে ডলারের রিজার্ভ আরো বৃদ্ধি পাবে। খবর বাপসনিউজ।


রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, বিগত অর্থবছরে বিদেশ থেকে দেশে রেমিট্যান্স গেছে প্রায় ২১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার যার মধ্যে সৌদি আরব প্রবাসীরা পাঠিয়েছেন প্রায় ৪.৫ বিলিয়ন ডলার। দেশে প্রেরিত রেমিট্যান্স এর মধ্যে সৌদি প্রবাসীরাই সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন। এজন্য সৌদি প্রবাসীদের আন্তরিক ধন্যবাদ ও অভিনন্দন জানান রাষ্ট্রদূত। রেমিট্যান্স প্রেরণে প্রতিবন্ধকতাগুলো দূর করে আরও সহজে দেশে রেমিট্যান্স প্রেরণের জন্য সম্ভাব্য সকল পদক্ষেপ নেয়া হবে বলে রাষ্ট্রদূত জানান। 

রাষ্ট্রদূত বিদেশে আসার আগে সবাইকে অবশ্যই একটি ব্যাংক একাউন্ট খুলে আসার আহবান জানান। তাহলে সহজেই যার যার নিজস্ব একাউন্টে টাকা পাঠানো ও তার হিসাব রাখা সহজ হয় বলে উল্লেখ করেন। প্রবাসীদের সময়মত নিজের পাসপোর্ট ও ইকামার মেয়াদ হালনাগাদ রাখার পরামর্শ দেন রাষ্ট্রদূত। কারন ইকামার মেয়াদ না থাকলে বৈধপথে রেমিট্যান্স পাঠানো সম্ভব হয়না। তাই এ বিষয়ে প্রবাসীদের সচেতন থাকার আহবান জানান তিনি।   

রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, রাশিয়া–ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলসহ বিভিন্ন প্রয়োজনীয় পণ্যের মূল্য বৃদ্ধিতে আমাদের আমদানি ব্যয় বৃদ্ধি পেয়েছে। বর্তমান পরিস্থিতিতে দেশের আমদানি ব্যয় মেটানো ও দেশের অর্থনীতি গতিশীল রাখার লক্ষ্যে বৈধ পথে তথা ব্যাংকিং চ্যানেলে দেশে অর্থ প্রেরণের জন্য প্রবাসীদের প্রতি আহবান জানান রাষ্ট্রদূত। 

রাষ্ট্রদূত বলেন, বৈধ পথে রেমিট্যান্স পাঠালে আপনার পরিবারের প্রয়োজন মেটানোর পাশাপাশি দেশের উন্নয়নে আপনার অবদান নিশ্চিত হয়। এছাড়া দেশে আপনার আয় বৈধ বলে বিবেচিত হয়। একই সাথে সরকার ঘোষিত ২.৫ শতাংশ হারে প্রণোদনা ও পাওয়া যায়। প্রবাসী আয়ে সম্পূর্ণ করমুক্ত সুবিধা ও পাওয়া যায়। রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বাস্তবায়নে ও প্রধানমন্ত্রীর ভিশন ২০৪১ বাস্তবায়নে আসুন সবাই বৈধ পথে রেমিট্যান্স প্রেরণ করি। 

সেমিনারে রিয়াদের ব্যবসায়ী, চিকিৎসক, প্রকৌশলী ও বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার অভিবাসিরা যোগ দেন। সৌদি আরবের জেদ্দা, দাম্মাম, তাবুকসহ বিভিন্ন শহরের অভিবাসিরা জুমের মাধ্যমে অনুষ্ঠানে যোগ দেন। ২৬ জন প্রবাসী সেমিনারে অনুষ্ঠানে তাঁদের বিভিন্ন মতামত, প্রশ্ন ও সুপারিশ তুলে ধরেন। প্রবাসীরা অভিবাসীদের সরকারের পেনশনের আওতায় আনার দাবি জানান। দূতাবাসের কর্মকর্তারা এ সময় প্রবাসীদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন ও তাঁদের সুপারিশগুলো যথাযথ কর্তৃপক্ষের কাছে পৌঁছে দেয়া হবে বলে আশ্বস্ত করেন। 

অনুষ্ঠানে রেমিট্যান্স বিষয়ে আলোচনায় অংশ নেন দূতাবাসের সোনালী ব্যাংক প্রতিনিধি মোঃ জসীম উদ্দিন খান, শ্রম কাউন্সেলর রেজায়ে রাব্বি, ইকোনমিক কাউন্সেলর মুর্তুজা জুলকার নাঈন নোমান, ও মিশন উপপ্রধান আবুল হাসান মৃধা। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন দূতাবাসের কাউন্সেলর মোঃ বেলাল হোসেন। অনুষ্ঠানে বক্তারা দেশে প্রেরিত রেমিট্যান্স কিভাবে দেশের উন্নয়নে কাজে লাগে তাঁর বিস্তারিত তুলে ধরেন। এছাড়া প্রবাসীদের জন্য সরকারের নেয়া বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা তুলে ধরেন। দূতাবাসের ডিফেন্স এ্যটাশে ব্রিগেডিয়ার জেনারেল গোলাম ফারুক অনুষ্ঠানে প্রবাসীদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন। 

অনুষ্ঠানে অনলাইনে যুক্ত হয়ে বক্তব্য প্রদান করেন জেদ্দাস্থ বাংলাদেশ কনস্যূলেটের কনসাল জেনারেল মোহাম্মদ নাজমুল হক। তিনি প্রবাসীদের বৈধ পথে রেমিট্যান্স প্রেরনের আহবান জানান। সৌদি আরবে বিভিন্ন অঞ্চলে বসবাসরত সকল প্রবাসীদের সুবিদার্থে অনুষ্ঠানটি দূতাবাসের ফেসবুক পেজে সরাসরি সম্প্রচার করা হয়।


শেয়ার করুন

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.

0 coment rios:

ধন্যবাদ আপনার সচেতন মন্তব্যের জন্য।